বাবর আজমের(Babar Azam) বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক নির্যাতন ও অর্থ আত্মসাতের গুরুতর অভিযোগ তার সাবেক প্রেমিকার

0
251
বাবর আজমের(Babar Azam) বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক নির্যাতন ও অর্থ আত্মসাতের গুরুতর অভিযোগ তার সাবেক প্রেমিকার

পাকিস্তানের লাহোরের হামজা মুখতার নামে এক তরুণী ভয়াবহ অভিযোগ এনেছে পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজমের বিরুদ্ধে। তরুণীর মতে, বাবর আজম নাকি তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘদিন ধরে শারীরিকভাবে যৌন নির্যাতন করেছেন। এমনকি, একপর্যায়ে হামজা নাকি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। প্রায় দশ বছর তাদের প্রেমের সম্পর্ক থাকলেও বাবর এখন আর তাকে পাত্তা দিচ্ছেন না ও সম্পর্ক অস্বীকার করছেন। গেল শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগের তীর ছোড়েন এই তরুণী।

বাবর আজমের(Babar Azam) বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক নির্যাতন ও অর্থ আত্মসাতের গুরুতর অভিযোগ তার সাবেক প্রেমিকার

সম্প্রতি, তিন ফরম্যাটের ক্রিকেটেই পাকিস্তানের অধিনায়ক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন বাবর আজম। আর এরই মধ্যে তার নামে উঠেছে এমন গুরুতর অভিযোগ। হামজা জানান তিনি আর বাবর স্কুলের সহপাঠী ছিলেন। একসময় তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এমনকি, বাবরকে নাকি প্রতিষ্ঠিত হতেও অনেক সাহায্য করেছিলেন তিনি। তার পরিচালিত বিউটি পার্লার থেকে প্রাপ্ত অর্থের এক বিশাল অংশ তিনি বাবরের পিছনে ব্যয় করেছিলেন। কিন্তু, বাবর নাকি এখন তাকে পুরোপুরি প্রত্যাখ্যান করছে।

হামজা জানান বাবর তাকে ২০১০ এ প্রেম নিবেদন করেন। এরপর বিয়ের কথা উঠলেও শেষমেশ নানা কারণে তাদের সম্পর্ক আর বিয়ে পর্যন্ত আর এগোয়নি। এরপর বাবরকে তিনি বারবার বিয়ের কথা বললেও বাবর তা এড়িয়ে যান ও একপর্যায়ে তাকে হত্যার হুমকি পর্যন্ত দেন। আস্তে আস্তে তারকাখ্যাতি পাওয়ার পর থেকেই নাকি বাবরের গলার সুর পরিবর্তন হতে থাকে।

বাবর আমাকে হত্যার হুমকি পর্যন্ত দিয়েছে। আমি অনেকদিন চুপ থেকেছি, ধৈর্য ধরেছি, কিন্তু তাতে কোন কাজ হয়নি। আমি এমনকি ২০১৭তে পুলিশ স্টেশনে গিয়েও কমপ্লেইন করেছি। কোন কাজ হয়নি তাতেও। কিন্তু, আমি আর চুপ থাকতে পারছিনা। আমি তার পিছনে অনেক অর্থ ব্যয় করেছি কিন্তু কানাকড়িও ফেরত পাইনি। যদিও তা নিয়ে আমার কোন দাবি বা আক্ষেপ নেই। আমি একজন প্রতিষ্ঠিত নারী। সেও একজন বড় মাপের খেলোয়াড়।

লাহোর প্রেস ক্লাবে এসব কথা বলেন হামজা।

তিনি আরও বলেন –

এখন হয়ত বাবরের আর্থিক কোন সমস্যা নেই। কিন্তু, একসময় তাকে আমি সাহায্য করেছি। এগুলো নিয়ে কিছু আর বলতেও চাইনা। আমি তার কাছ থেকে অর্থফেরত নয়। আমি চাই সে আমাকে বিয়ে করুক। কেননা, জাতীয় দলে সুযোগের পর থেকেই তার আচরণ পরিবর্তিত হতে থাকে।

হামজা তাদের শারীরিক সম্পর্ক আর অন্তঃসত্ত্বা হওয়া নিয়েও কথা বলেন। এসময় পিসিবি এর কাছে নালিশের কথাও তুলে ধরেন তিনি।

আমিই ২০১৫ সালে অন্তঃসত্ত্বা হই। আমার গর্ভে তার সন্তান আসে। কিন্তু, তার জোরাজুরিতে অবশেষে আমাকে এবরশনের মত ঘৃণ্যকাজকে বেঁছে নিতে হয়। আমি পিসিবিকে অনুরোধ জানিয়েছি তাকে দল থেকে বহিষ্কারের জন্য। যদি তারা তা না করে তবে আমি পিসিবির অফিসের সামনে নিজের শরীরে আগুন ধরিয়ে দেব।

সদ্যই পাকিস্তানের সবকটি ফরম্যাটের অধিনায়কত্ত পাওয়া ও দারুণ পারফর্ম করে চলা ২৬ বছর বয়সী ব্যাটসম্যানের বিরুদ্ধে এহেন অভিযোগের পর চারিদিকে প্রবল আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দিয়েছে। পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের চারিত্রিক ব্যাপারেও নতুন করে সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। এদিকে, বাবর এখন আসন্ন দ্বিপাক্ষিক সিরিজে অংশ নিতে নিউজিল্যান্ডে অবস্থান করছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here